মাকে কুপিয়ে হত্যা করলো তালাকপ্রাপ্তা মেয়ে

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক নারীকে কুপিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে মেয়ের বিরুদ্ধে। বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে পৌরশহরের উত্তর কলেজ পাড়া এলাকায় মোনালিসা কুটির ভবনের দোতলার নিজ বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ফিরোজা নাসরিন ওই এলাকার অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা মৃত হেমায়েত উদ্দিনের স্ত্রী। তাকে হত্যার অভিযোগে মেয়ে তামান্না জেবিন রুমাকে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, ফিরোজা নাসরিন ছেলে রিয়াজ ও মেয়ে তামান্না জেবিন রুমাকে নিয়ে নিজ বাসায় থাকতেন। রুমার সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় সম্প্রতি শহরের মহিলা কলেজ এলাকায় স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে ভাড়া বাসায় চলে যান রিয়াজ।

রিয়াজ  জানান, গত দুইদিন ধরে তালাকপ্রাপ্তা রুমা মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। এজন্য তিনি ভাড়া বাসা ছেড়ে মায়ের কাছে চলে যান। সকালেবেলা রুমা মানসিকভাবে অসুস্থ হলে ডাক্তার নেওয়ার জন্য শহরে যান। ডাক্তার না পেয়ে পরে বাসায় গিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ। প্রতিবেশিদের সহযোগিতায় ঘরের দরজা ভেঙ্গে রান্নাঘরে মায়ের মরদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেন।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাসুদুজ্জামান মিলু জানান, মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়ে তার মাকে এলোপাতারি কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এ খুনের পিছনে অন্য কোন কারণ আছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় নিহতের একমাত্র ছেলে রিয়াজ উদ্দিন বাদী হয়ে হত্যা মামলা করায় রুমাকে গ্রেফতার এবং মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *